অভিনব কায়দায় স্বর্ণ ও নগদ অর্থ লুট করার অভিযোগ

এসএম বাচ্চু,তালা(সাতক্ষীরা)প্রতিনিধি : তালায় উপজেলা সদরে অভিনব কায়দায় সাড়ে ৮ ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ ১০ হাজার টাকা লুট করেছে এক দুর্বৃত্ত। রবিবার দুপুরে তালা সদরের সাবেক সেনা সদস্য আলতাফ হোসেনের বাড়ি এ ঘটনা ঘটে।
ঘটনা তদন্তে জানা যায়, রবিবার দুপুরে দরবেশের বেশ ধরে একজন ব্যক্তি আলতাফ হোসেনের বাড়ি প্রবেশ করে। কথাবার্তার এক পর্যায়ে একমুঠো মাটি আনতে বলে এবং সেখান থেকে অল্প মাটি মিষ্টি বলে আলতাফকে খাওয়ায়, এরপর বলে তোর সামনে অনেক বিপদ। পূর্বে তোর দুটি ছেলে সন্তান মারা গেছে, তোর স্ত্রী বর্তমান খুব অসুস্থ্য এখান থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে আমি যা বলি তা শোন। ১টি ভাত, একটুকরো কাপড় নিয়ে আয়। অতঃপর সেই ফকির ভাতটি কাপড়ের টুকরোতে রাখলে কাপড়ে আগুন লেগে যায়। এরপর ঘর থেকে একটা কোরআন শরীফ নিয়ে আসতে বলে, অতঃপর ঘরে থাকা সমস্ত নগদ টাকা ও স্বর্ণলংকার আনতে বলে। যা একটি কাপড়ে জড়িয়ে ঐ কোরআন শরীফের ভিতরে রাখতে বলে, পরবর্তীতে ঐ পবিত্র কারআন শরীফ একটা মাটির টুকরো, নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার কাপড়ে জড়িয়ে রেখে বলে যা বৎস ঘরে তুলে রাখ, কেউ যেনো না দেখে ও আগামী ২১ দিনপর খুলতে বলে । এর আগে ঐ কোরআন শরীফ খুললে তোর কন্যা-সন্তান ও স্ত্রীর মুখ দিয়ে রক্ত উঠে তারা মারা যাবে। পরবর্তীতে তার স্ত্রীর আহাজারীতে প্রতিবেশীরা এসে ঐ কোরআন শরীফ খুলে দেখে তার ভিতরে আগুন লেগে বেশ কয়েকটি পাতা পুড়ে গেছে এবং কোন স্বর্ণালংকার ও টাকা পয়সা কিছুই নেই।
আলতাফ হোসেন জানান, তাহার বাড়ি থেকে সাধুবেশে দরবেশ বাবা তাহাকে বিভিন্ন প্রকার ভয় দেখিয়ে নগদ ১০ হাজার টাকা, ৯ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে চলে গেছে ।
তালা থানার অফিসার ইনচার্জ হাসান হাফিজুর রহমান জানান, আমাদের সিসি ক্যামেরায় ভন্ড দরবেশ বাবাকে দেখা গেছে তদন্ত চলছে।