‘অবৈধভাবে’ হলে থাকছেন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী

ঢাবি প্রতিনিধি

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধে অবৈধভাবে কক্ষ দখল করে হলে থাকার অভিযোগ উঠেছে। 
আবাসন সংকটের মধ্যেই সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের একটি কক্ষে তার অবস্থান নিয়ে সাধারণ ছাত্রদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

 
জানা গেছে, ২০০৭-২০০৮ সেশনে আইন বিভাগের শিক্ষার্থী ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে সিট বরাদ্দ পান। নতুন করে এমফিল ভর্তি হওয়ায় তিনি সার্জেন্ট জহুরুল হক হলে বরাদ্দ পান। 
বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী, এমফিলের শিক্ষার্থী হলে সিট বরাদ্দ পেলেও সেখানে তিনি থাকতে পারবেন না। তাদের হলের বৈধ আইডি কার্ড দেওয়া হয় না। 
তবে অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের ২০৩ নাম্বার কক্ষে থাকেন।

যা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী অবৈধ।
ছাত্ররা এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, হলে সিট সংকট রয়েছে। একটি কক্ষে তিন-চারজন ছাত্র থাকেন। কিন্তু তিনি একাই একটি কক্ষ অবৈধভাবে দখল করে রেখেছেন।  
জানতে চাইলে সার্জেন্ট জহুরুল হক হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী এমফিল শিক্ষার্থী হলে বরাদ্দ পেলেও তিনি বৈধ কার্ড পান না’। 
তবে গোলাম রব্বানীর হলে থাকা নিয়ে প্রশ্ন করতে চাইলে তিনি দ্রুত ফোন কেটে দেন। আর ফোন রিসিভ করেননি। 
এ বিষয়ে জানতে গোলাম রাব্বানী’র ব্যাক্তিগত ফোনে কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।