অবশেষে নেইমারকে নিয়ে মুখ খুললেন ম্যারাডোনা

ফুটবল তারকা ম্যারাডোনা বোকা জুনিয়র্সের পর নাপোলিকেই নিজের ক্লাব বলে মনে করেছেন। তবে ম্যারাডোনা একটি ব্যাপারে যেন বার্সার পাশেই থাকলেন। নেইমারের ঠিকানা কী হওয়া উচিত—এমন প্রশ্নে কাতালান ক্লাবটিকেই তার পছন্দ।

নেইমারকে ভাগিয়ে নিতে চায় রিয়াল মাদ্রিদ—এমন একটা গুঞ্জন চলছে। তবে ম্যারাডোনা মনে করেন, মেসি, নেইমার, সুয়ারেজ—বার্সায় এই তিনজনের গায়ে কেউ ফুলের টোকাও দিতে পারবে না।

স্প্যানিশ দৈনিক মার্কাকে বলেছেন, ‘না, না। নেইমার, সুয়ারেজ ও মেসি কখনোই রিয়াল মাদ্রিদে যাবে না’। সমর্থকেরা ওদের সঙ্গে আছে। মনে হয় না নেইমার কোথাও যাবে।

কেন যাবেন না, তার কারণও ব্যাখ্যা করেছেন ৫৫ বছর বয়সী আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি। রিয়ালে রোনালদো যত দিন থাকছে, তত দিন সেখানে ভেড়ার কথা নেইমার ভাববেন না। রোনালদো রিয়াল ছাড়ার পর কি তাহলে নেইমারের ঠিকানা বদলের সম্ভাবনা আছে? সেটিও মনে করছেন না ছিয়াশি বিশ্বকাপের মহানায়ক। কারণ নেইমারের সঙ্গে বার্সেলোনায় তার দুই ‘আমিগো’র সম্পর্ক। মেসি, নেইমার, সুয়ারেজকে নিয়ে গড়া কাতালান ক্লাবটির আক্রমণভাগকে ফুটবল ইতিহাসেরই সেরা বলা হচ্ছে।

নতুন বছরের প্রথম মাসেই দেখুন, তিনজনে মিলে ১৮ গোল করেছেন। আর তিনজনের পায়ে ভর করে বার্সাও ছুটছে ইতিহাসে প্রথম ক্লাব হিসেবে টানা দ্বিতীয় ট্রেবল জয়ের মিশনে। জানুয়ারিতে নয় ম্যাচে আট জয়, এক ড্র। করেছে ২৫ গোল, খেয়েছে মাত্র ৫টি!

তারা তিনজনই জ্বলে উঠছেন, বার্সাও প্রতিপক্ষকে ছিড়ে খুবলে খাচ্ছে। তবে এদের মধ্যে একজন তো থাকেন নিউক্লিয়াস। ম্যারাডোনার চোখে এখনো বার্সেলোনাতে সেটি তাঁর সাবেক শিষ্য মেসি। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে মেসি আরও পরিণত হচ্ছেন বলেই মনে করছেন ১৯৮৬ বিশ্বকাপজয়ী নায়ক।

প্রতিপক্ষ কখন সবচেয়ে বেশি দুর্বল, আক্রমণে গতি কখন বাড়াতে হবে, কখন খেলাটাকে একটু ধীর করে দিতে হবে—এই ‘ম্যাচ রিডিং’য়ের ব্যাপারগুলোও এখন মেসি আগের চেয়ে ভালো বুঝছেন বলে মনে করছেন ম্যারাডোনা।

এমনকি আর্জেন্টাইন অধিনায়ক নাকি ম্যাচের গুরুত্ব হিসেব করেও খেলছেন, ‘ও খুব ভালো অবস্থায় আছে। নিজের শক্তি খুব বুঝেশুনে খরচ করছে। কারণ ও জানে মৌসুম নির্ধারক ম্যাচগুলো সামনে আসবে। এটা ওর পরিণতি বোধের প্রমাণ’।

বিস্ফোরক নেইমার-সুয়ারেজের সঙ্গে পরিণত মেসি—এই তিনের কল্যাণে স্বপ্নের মতো সময় পার করছে বার্সেলোনা সমর্থকেরা।

সূত্র: ইএসপিএন।