অবশেষে উপাচার্য ভবন ছাড়লেন অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিক

মেয়াদ শেষ হওয়ার পাঁচ মাস পর অবশেষে উপাচার্য ভবন ছাড়লেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য সাবেক হওয়া উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

রবিবার রাতে সাবেক এই ভিসির বাসা ছাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এস্টেট অফিসের ম্যানেজার সুপ্রিয়া দাস।

সুপ্রিয়া দাস বলেন, রবিবার বিকেল চারটায় তিনি (উপাচার্য) বাসভবনটি আমাদের বুঝিয়ে নিয়েছেন। বাসা বুঝিয়ে দিয়ে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়স্থ প্রভোস্ট কমপ্লেক্সের ৭ম তলার বাসাটিতে উঠেছেন। পরে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ভবনের সকল কর্মকতা ও কর্মচারীকে বিদায় জানিয়েছেন। এ সময় আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

গত পাঁচ মাস সময়ের মধ্যে আরেফিন সিদ্দিককে অন্তত দুই দফা বাসা ছাড়ার অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দিয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় এস্টেট অফিস। যার মধ্যে প্রথমটি ছিল গেল বছরের ১০ই অক্টোবর, দ্বিতীয় ছিল চলতি বছরে জানুয়ারি মাসে।

কারণ অধ্যাপক মো আখতারুজ্জামান উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার পর তার আগের প্রো-উপাচার্য ভবনে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়ছিলেন সেটি ছোট হওয়ার কারণে।

পরিসংখ্যান বলছে, ১৯৯২ সালে ভিসি হিসেবে নিয়োগ পাওয়া অধ্যাপক এমাজ উদ্দিন আহমদের পর থেকে অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিকের আগ পর্যন্ত ঢাবিতে যে কয়জন ভিসি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন, তাদের মধ্যে মেয়াদ শেষে সর্বোচ্চ ২৭ দিন পর ভিসি ভবনে অবস্থান করেছিলেন অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী। আর সর্বনিম্ন ১০ দিন ছিলেন অধ্যাপক আনোয়ার উল্লাহ চৌধুরী।

এছাড়া অধ্যাপক এস এম এ ফায়েজ ২০ দিনের মাথায় বাসা ছাড়েন। আর অধ্যাপক এমাজ উদ্দিন আহমদ নতুন ভিসি নিয়োগের পূর্বেই বাসা ছেড়ে দেন। কিন্তু অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিক নতুন ভিসি নিয়োগের প্রায় পাঁচ মাস পর ভবনটি ছাড়লেন ।

উল্লেখ্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচায হিসেবে গত ৪ সেপ্টেম্বর নিয়োগ পান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। সাবেক উপাচায অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের মেয়াদ শেষ হওয়ায় তাকে এ পদে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. আবদুল হামিদ।

Inline
Inline