‘অপু-বাপ্পীর বোঝাপড়া চমৎকার’

বিনোদন ডেস্ক : ক্যারিয়ারে প্রথম কোনো ছবিতে জুটি বেঁধে অভিনয় করছেন আলোচিত জুটি অপু বিশ্বাস ও বাপ্পী চৌধুরী। তাও আবার ২০০১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত রিয়াজ-শাবনূর অভিনীত ও দেবাশীষ বিশ্বাস পরিচালিত ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’ ছবির সিক্যুয়েলে। ছবিটি সে সময়কার সবচেয়ে সুপারহিট। তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছিল রিয়াজ-শাবনূর জুটিও। এরপর ছবিটি কলকাতায়ও নির্মিত হয়।

এবার ছবির দ্বিতীয় সিক্যুয়েলে পরিচালক দেবাশীষ এক করেছেন অপু বিশ্বাস ও বাপ্পী চৌধুরীকে। অপু চলচ্চিত্রে আসেন ২০০৫ সালে। বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া বাপ্পী আসেন ২০১২ সালে। কিন্তু একসঙ্গে কাজ না করা সত্ত্বেও তারা তুমুল আলোচিত। আলোচনার সূত্রপাত করেছিলেন নায়ক শাকিব খান।

অপুর সঙ্গে বাপ্পীকে জড়িয়ে গত বছরের শেষ দিকে গুরুতর অভিযোগ এনেছিলেন অপুর সাবেক স্বামী শাকিব। গত নভেম্বরে ছেলে জয়কে দেশে রেখে অপু কলকাতায় ডাক্তার দেখাতে গেলে শাকিব অভিযোগ করেন, ‘ডাক্তার দেখাতে নয়, অপু বয়ফ্রেন্ড নিয়ে ঘুরতে গিয়েছিলেন।’ সেই থেকেই অপুর ‘অদৃশ্য বয়ফ্রেন্ড’ হিসেবে পরিচিতি পান নায়ক বাপ্পী।

কিন্তু এহেন অভিযোগ পায়ে মাড়িয়ে তারা দুজনেই কাজ করছেন দেবাশীষ বিশ্বাসের ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ২’ ছবিতে। গত ১৩ মে রাজধানীর প্রিয়াংকা শুটিং হাউজে ছবির শুভ মহরত অনুষ্ঠিত হয়। শুটিংও শুরু হয় ওইদিন থেকে। ইতিমধ্যে ছবির প্রথম লটের শুটিং শেষও হয়ে গেছে। শুটিং হয়েছে মোট ছয় দিন। শুটিংয়ে অপু-বাপ্পী দুজনেই অংশ নেন।
ছবির প্রথম লটের শুটিং শেষে দুই তারকা অপু ও বাপ্পীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস। গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘নতুন জুটি হিসেবে অপু-বাপ্পীর মধ্যে কোনো জড়তা ছিল না। দুজনের বোঝাপড়াও চমৎকার। মানিয়েছে বেশ ভালো।’

ছবিতে অপুর চরিত্রটির নাম ঈশানা এবং বাপ্পীর নাম আবীর। নায়ক-নায়িকার চরিত্র সম্পর্কে দেবাশীষ বলেন, ‘আমরা ছবিতে দেখব, ঈশানা মা-বাবার আদরের মেয়ে। সে জেদি ও একরোখা। অন্যদিকে আবীর একটি তেলের দোকানদার। স্বভাবে সে ভীষণ চতুর আর ফাপড়বাজ।’

‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ২’ প্রযোজনা করছে বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া লিমিটেড। জুন মাসের প্রথম সপ্তাহ অথবা আসছে রোজার ঈদের পর থেকে ছবির দ্বিতীয় লটের শুটিং শুরু হবে বলে জানান পরিচালক দেবাশীষ। তবে অপু বিশ্বাস ও বাপ্পী চৌধুরী ছাড়াও ছবিতে আরো কারা অভিনয় করছেন সে সম্পর্কে কিছু জানাননি পরিচালক।