অপহৃত পলিকে উদ্ধারের জন্য পুলিশ হন্যে হয়ে খুঁজছে অপরাধীদের

গাজীপুর থেকে আশীষ কুমার অঞ্জন : গার্মেন্টস কর্মী সুন্দরী কিশোরী পলিকে উদ্ধারের জন্য পুলিশ হন্যে হয়ে খুঁজছে অপরাধীদের। মোবাইলে অপহরনের কথা জানানোর পর পলির মা বাবা নিশ্চিত হন পলির অপহরনের বিষয়। তারা গাজীপুর পুলিশ সুপার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ ছাড়াও কালিয়াকৈর থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন।
থানা পুলিশের নিকট দেয়া অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পলি রাণী দাস গাজীপুর থানাধীন কালিয়াকৈর উপজেলার পূর্ব চান্দুরা ছাপড়া মসজিদ এলাকার সেলিম মিয়ার ভাড়াটিয়া বিমল চন্দ্র দাসের কন্যা। সে লিডা ফ্যাক্টরীতে চাকুরী করত। পলি রানী দাস তার কর্মস্থল থেকে গত ১৬ সেপ্টেম্বর দুপুরের খাবার খাওয়ার জন্য বের হয় এবং এ পর্যন্ত তার কোন সন্ধান না পেলেও অঞ্জাতনামা ব্যক্তি মোবাইলের মাধ্যমে পলির পিতাকে অপহরনের তথ্য জানায়। এ সংবাদের পর পলির পিতা বিমল চন্দ্র দাস পুলিশ সুপার বরাবর একটি অভিযোগসহ কালিয়াকৈর থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন, যার নং- ৬৯৬ তাং-১৭/০৯/২০১৮ ইং।
পলি রাণী দাসের উপর কার নজর পড়তে পারে, লিডা ফ্যাক্টরীর কেউ, নাকি তার যাতায়াতের পথে নিয়মিত ফলো করা কোন ব্যক্তির? কোন উদ্দেশ্যে তাকে অপহরন করা হয়েছে, নিজেদের লালসা পূরনের জন্য নাকি মুক্তিপণ বা জোর পূর্বক বিবাহের জন্য? এ সকল বিষয় খতিয়ে দেখা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন মানবাধিকার সংস্থাগুলো। তারা অনতিবিলম্বে কিশোরী পলিকে উদ্ধার করার দাবী জানিয়েছেন। হিউম্যান রাইটস ক্রাইম ওয়াচ তাদের এক বিবৃতিতে কিশোরী পলিকে দ্রুত উদ্ধার করার দাবী জানিয়েছেন।

Inline
Inline