অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির ঘোষণা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের

সিলেকশন গ্রেড বহাল ও গ্রেড সমস্যা নিরসনের দাবিতে ১১ জানুয়ারি থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। এ সময় ক্লাস-পরীক্ষা ও সান্ধ্যাকালীন কোর্সগুলোও বন্ধ থাকবে।

শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে দীর্ঘ বৈঠক শেষে প্রেস ব্রিফিং করে ফেডারেশন এই কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

ফেডারেশনের মহাসচিব অধ্যাপক এএসএম মাকসুদ কামাল বলেন, যতদিন দাবি আদায় না হবে, ততদিন পর্যন্ত তাদের কর্মবিরতি চলবে। এর মধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো আলোচনার আহ্বান এলে শিক্ষক নেতারা আলোচনায় বসবেন। কিন্তু প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে যতদিন না দাবি মেনে নেওয়া হবে, ততদিন কর্মবিরতি প্রত্যাহার করা হবে না।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, তারা প্রতারিত হয়েছেন। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত শিক্ষকদের দাবি মেনে নেওয়ার সুস্পষ্ট অঙ্গীকার করেছিলেন, কিন্তু তা বাস্তবায়িত হয়নি।

ব্রিফিংয়ে অন্যান্য কর্মসূচি ঘোষণা করেন শিক্ষকেরা। আগামীকাল রোববার থেকে ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষকেরা কালো ব্যাজ ধারণ করে ক্লাসে যাবেন। ৭ তারিখ বেলা ১১টা থেকে একটা পর্যন্ত নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অবস্থান কর্মসূচি পালন করবেন। এরপর ১১ তারিখ থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য সর্বাত্মক কর্মবিরতিতে যাবেন। ব্রিফিংয়ে ৩৭টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় সব বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরা আলোচনার মাধ্যমে এ সিদ্ধান্ত নেন। পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের মহাসচিব ড. এ এইচ এম মাকসুদ কামাল সংগঠনের বিভিন্ন সিদ্ধান্তের বিষয়ে জানান।

Leave a Reply