অতীতের সংসদ সদস্যের রেকর্ড ভেঙে ইকবাল হোসেন সবুজ’র ব্যাপক রেকর্ড

আশিকুল ইসলাম, (গাজীপুর) শ্রীপুর থেকে : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীরা সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন। সংসদ ভবনের সংশ্লিষ্ট কক্ষে বেলা ১১টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তাদের শপথ বাক্য পাঠ করান। এর আগে, মঙ্গলবার নতুন নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের নামে গেজেট প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন ইসি।

শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে আনোয়ার খান ডি ভিলিয়ার্সের অপেক্ষায় টম মুডি
বর্তমান স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী একাদশ সংসদ নির্বাচনে এমপি নির্বাচিত হওয়ায় তিনি আগে শপথ গ্রহণ করেন। পরে স্পিকার হিসেবে তিনি নির্বাচিত অন্য সদস্যদের শপথ পড়ান।

নতুন নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নবনির্বাচিত জনাব ইকবাল হোসেন সবুজ। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে গাজীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন সবুজ মুজিব কোট পরিহিত অবস্থায়ই সবার সাথে শপথ পড়েন।

দ্বিতীয় গোপালগঞ্জ খ্যাত গাজীপুর-৩ আসনের সর্বোচ্চ জনপ্রিয়তা এবং সকল জন সাধারণের ভালোবাসার কারনে বিপুল ভোটের মাধ্যমে বিজয়ী হয়েছেন ইকবাল হোসেন সবুজ। আর এ চমকের পেছনে প্রধান ভূমিকা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তিনি ইকবাল হোসেন সবুজকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছিলেন।

তবে এই আসনের ছয় ছয় বার জনগণের ভোটে নির্বাচিত সাংসদ আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট রহমত আলি সাহেবের অতীতের রেকর্ডকে হার মানিয়েছে ইকবাল হোসেন সবুজ। তবে এই আসনের সাবেক সাংসদ রহমত আলী সাহেব বার্ধক্যজনিত কারনে দলীয় মনোনয়ন পাননি কিন্তু, নবনির্বাচিত এই সাংসদ কঠোর পরিশ্রম এবং অসম্ভব ত্যাগ তিতিক্ষার মাধ্যমে সাবেক সাংসদের জায়গাটা ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছেন বলে মনে করেন এই আসনের সাধারণ মানুষ। নির্বাচনে গাজীপুর-৩ (শ্রীপুর উপজেলা ও গাজীপুর সদর উপজেলার ভাওয়ালগড়, মির্জাপুর ও পিরুজালী ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সংসদীয়-১৯৬) আসন।

এই আসনের অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ। এ আসনে ১৬৯ কেন্দ্রের ফলাফলে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইকবাল হোসেন সবুজ ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৩২০ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী (ধানের শীষ) প্রতীকে ঐক্যফ্রন্টের কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রার্থী প্রিন্সিপাল ইকবাল সিদ্দিকী পেয়েছেন ৩৭ হাজার ৭৮৬ ভোট।

মই প্রতীকে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম মফিজ উদ্দিন আহমদ পেয়েছেন ১৮৫, গোলাপফুল প্রতীকে জাকের পার্টির নাসির উদ্দিন পেয়েছেন ৭৫২, ফুলের মালা প্রতীকে তরিকত ফেডারেশনের রফিকুল ইসলাম পেয়েছেন ৬১ ও হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলনের রহমত উল্লাহ পেয়েছেন ৩হাজার ৩শত ৮৯ ভোট। আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে সমর্থন দিয়েও জাতীয় পার্টির আফতাব উদ্দিন লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন ৩শত ৩৩ ভোট।

দ্বিতীয় গোপালগঞ্জ খ্যাত গাজীপুরের এই আসনে বরাবরই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর কাছে বিপুল ভোটে পরাজিত হয়েছে ধানের শীষের প্রার্থী। এইবার এই আসনে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ছিলেন ইকবাল হোসেন সবুজ। আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইকবাল হোসেন সবুজের কাছে ৩ লাখ ৫ হাজার ৫৩৪ ভোটে পরাজয় বরণ করেন ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী ইকবাল সিদ্দিকী যা অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। এর আগে এই আসন থেকে এত ভোটের ব্যবধানে কেউ নির্বাচিত হয়নি।

গাজীপুর-৩ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৩৬ হাজার ৭২০ জন। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ১৭ হাজার ৮৯ জন ও নারী ভোটার ২ লাখ ১৯ হাজার ৬৩১ জন।

গাজীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন সবুজ বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ায় সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে ব্যাপক আনন্দ উল্লাস লক্ষ্য করা গেছে।